পানির দামে নেমে এলো স্বর্ণের দাম, হুমরি খেয়ে কিনছে ক্রেতারা

আরেক দফা কমেছে সোনার দর। সোনার বাজারে দরপতন হলেও বাড়তির দিকেই ছিল রুপার মূল্য। সোমবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে পাওয়া সর্বশেষ খবরে বিশ্ব বাজারে প্রতি আউন্স সোনা বিক্রি হয়েছে ১৯২৬ দশমিক ৪৯ ডলারে। যা আগের দিনের তুলনায় ৩ দশমিক ১৫ ডলার কম।

সোনার দর কমলেও একই দিন রুপার বাজারে দর ছিল কিছুটা উর্ধ্বমুখী। গতকালের তুলনায় সোমবার প্রতি আউন্স রুপার মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে ০ দশমিক ১৬ ডলার।

ফলে এদিন প্রতি আউন্স রুপা বিক্রি হয়েছে ২৫ দশমিক ৩১ ডলারে। সাধারণত বাজারে সোনা এবং রুপার মূল্য একই সাথে উত্থান পতনের চিত্র দেখা যায়। তবে এবার যেন কিছুটা ভিন্ন রূপ দেখা গিয়েছে রুপার বাজারে।

গত বেশ কিছুদিন ধরেই সোনার বাজারে কিছুটা দরপতন দেখা গিয়েছে। মাঝেমধ্যে কিছুটা বাড়লেও তা বেশি সময় স্থায়ী হতে দেখা যায়নি। গত সপ্তাহেও সোনার বাজারের উত্থান-পতন দেখা গিয়েছে।

গত ৯ অক্টোবর আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার দাম ছিল বেশ উর্ধ্বমুখী। এদিন আগের দিনের তুলনায় ৩৪ দশমিক ৫২ ডলার মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে প্রতি আউন্স সোনায়। ফলে এদিন প্রতি আউন্স সোনা বিক্রি হয়ে ১৯২৯ দশমিক ৬৪ ডলারে।

শুধু তাই নয়, ৮ অক্টোবরও সোনার মূল্য প্রতি আউন্সে আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়তে দেখা গিয়েছে ৭ দশমিক ৬৯ ডলার। অন্যদিকে ৯ অক্টোবর রুপার বাজারেও দাম উত্থানের দিকেই ছিল। আগের দিনের তুলনায় এদিন প্রতি আউন্স রুপার মূল্য বাড়ে ১ দশমিক ২৭ ডলার। এছাড়া ৮ অক্টোবরও দাম বেড়েছিল রুপার।

সোনার বাজারে এমন অস্থিরতার কারন হিসেবে আন্তর্জাতিক বাজার বিশ্লেষকরা মনে করছেন আসন্ন মার্কিন নির্বাচনের কারনেই বিশ্বের সোনার বাজারে প্রভাব পড়ছে।

আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার দরের এমন উত্থান-পতন হলেও দেশের বাজারে সহসাই প্রভাব পড়ছে না। দেশের বাজারে সোনার দর কমতে হয়ত আরও কিছুদন সময় লাগতে পারে এমনটাই ধারনা করছেন বিশ্লেষকরা।